এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয় :মির্জা ফখরুল

2017-07-18

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) ঘোষিত নির্বাচনী রোডম্যাপ হলো আওয়ামী লীগের ক্ষমতায় যাওয়ার নীল নকশা বাস্তবায়নের সূচনা। সুপরিকল্পিতভাবে একদলীয় শাসন নিশ্চিত করতে রোডম্যাপ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, দলের স্থায়ী কমিটির ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, মির্জা আব্বাস, সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী প্রমুখ। মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব, সি ইসির এমন বক্তব্য প্রধানমন্ত্রী ও এমপি-মন্ত্রীদের মতো হয়েছে। অথচ সবাই বিশ্বাস করে এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। ইসি ঘোষিত রোডম্যাপের মাধ্যমে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে । তাদের উদ্দেশ্য শুভ নয়। মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচন কমিশন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য রোডম্যাপ ঘোষণা করেছে। এই রোডম্যাপ জাতির আশা-আকাঙ্খাকে উপেক্ষা করেছে। পুরোনো কায়দার আওয়ামী লীগের ক্ষমতায় যাওয়ার নীল নকশা বাস্তবায়নের যাত্রা শুরু করেছে। তিনি বলেন, জাতি চরমভাবে হতাশ ও ক্ষুদ্ধ হয়েছে। জাতির প্রত্যাশা নির্বাচন কমিশন সকল ভয় ভীতি প্রভাব মুক্ত হয়ে, সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে সকল দলের অংশ গ্রহণ নিশ্চিত করার জন্য নির্বাচনকালীন একটি সহায়ক সরকারের দাবি বাস্তাবায়নে কার্যকারী প্রদক্ষেপ গ্রহণ করবে। সেই লক্ষ্যেই সকল রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের আয়োজন করবে। এটাই ছিল জাতির প্রত্যাশা। নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্যে মির্জা ফখরুল বলেন, যেন তেনভাবে একটি নির্বাচন অনুষ্ঠান ও আওয়ামী লীগতে ক্ষমতায় বসানো নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব নয়। আগামী নির্বাচনে সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচনে আনতে হবে। সকলকে ভোটাধিকার প্রয়োগ করার সুযোগ দিতে হবে। কিন্তু নির্বাচন কমিশন সেই লক্ষ্যে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির জন্য রোডম্যাপ দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। এটাও প্রমাণিত হয়েছে সেই উচ্ছা তাদের নেই। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব এটা বলে জনগণকে আরো হতাশ করেছে। তারই বক্তব্য সরকারের প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী এবং নেতৃবৃন্দের বক্তব্যেই প্রতিফলন। অথচ বাস্তবতা সম্পূর্ণ ভিন্ন। ইসির সংলাপে বিএনপি সাড়া দিবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, সংলাপে সারা দেওয়া অনেক পরে কথা । বিএনপির প্রত্যাশা নির্বাচন কমিশন বাস্তবতা উপলদ্ধি করে সকল রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা নিবেন। সরকারের কাছেও আমরা আবারো বলছি, নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের জন্য সকল রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে একটা জায়গায় পৌঁছানোর জন্য।

রাজনীতি