চন্দনাইশে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

2017-07-22

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চন্দনাইশ উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক শিক্ষক প্রতিনিধি সম্মেলন গত ২০ জুলাই দুপুরে চন্দনাইশ সদরস্থ কাশেম মাহবুব উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক বিজয় কৃষ্ণ ধরের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য এম এ ছফা চৌধুরী। উদ্বোধক ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবু কাউসার। প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম অঞ্চলের সহ-সভাপতি আবদুচ ছাত্তার মজুমদার। সংগঠনের সদস্য সচিব বিজয়ানন্দ বড়–য়ার সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক শাখার সহ-সভাপতি গোলাম রহমান, আঞ্চলিক কমিটির যুগ্ম সচিব মো. সাইফুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলার সভাপতি আবদুল খালেক, প্রধান শিক্ষক যথাক্রমে জাফর আহমদ, প্রমোদ রঞ্জন বড়–য়া, দীপক বিশ্বাস, নুরুল কবির, বিষ্ণুযশা চক্রবর্তী, সমীর কান্তি দে, নুর মোহাম্মদ, আমজাদ হোসেন, মো. ইছহাক, মফিজুর রহমান, মো. ইসমাইল, সহকারী প্রধান শিক্ষক যথাক্রমে আবু ইউছুপ, শাহজাহান সিরাজী, শিক্ষক যথাক্রমে চন্দন চৌধুরী, নাজমুদ্দীন তাওহীদ, অমল কান্তি দে, রফিক আহমদ, আবদুল হাকিম, মমতাজ উদ্দিন, অমল কান্তি নাথ, মো. আবু ছালেক প্রমুখ। সভার দ্বিতীয় অধিবেশনে বিজয়ানন্দ বড়–য়াকে সভাপতি, মো. ইছহাককে সচিব করে ২৩ সদস্য বিশিষ্ট আগামী ৩ বছরের জন্য পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। সভায় বক্তাগণ বলেন, সরকারি-বেসরকারি শিক্ষার যদি হয় একই মান, তবে এই দুয়ের মধ্যে কেন দুই ধরনের সম্মান। সরকারি-বেসরকারি অর্থনৈতিক বৈষম্য বজায় রেখে মানসম্মত শিক্ষা আশা করা যায় না। দেশের সকল সরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী ২০১৬ সালের জুলাই মাস থেকে ৮ম পে-স্কেলে ৫% ইনক্রিমেন্ট পেলেও; সমযোগ্যতা, সমঅভিজ্ঞতা ও সমপদে নিয়োজিত ছাব্বিশ হাজার বে-সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৫ লক্ষাধিক এম পিও ভূক্ত শিক্ষক-কর্মচারী আজ পর্যন্ত ৫% ইনক্রিমেন্ট না পেয়ে হতাশ। তাই, ৮ম পে-স্কেল অনুযায়ী সরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের অনুরুপ বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট, চিকিৎসাভাতা, বাড়ীভাড়া, পূর্নাঙ্গ উৎসব ভাতা এবং বৈশাখী ভাতা প্রদানের জন্য শিক্ষক নেতৃবৃন্দ সরকারের নিকট জোর দাবী জানান। সম্মেলনে শিক্ষক কর্মচারীদের কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসার ভাতার জন্য অতিরিক্ত ৪% কর্তনের গেজেট প্রত্যাহার করার এবং দীর্ঘ সূত্রিতার অবসান ঘটিয়ে অবসর গ্রহণের ৬ মাসের মধ্যে শিক্ষক কর্মচারীদের কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর ভাতা প্রদানের দাবী জানানো হয়। বিধি মোতাবেক নিয়োগপ্রাপ্ত সকল নন এম পি ও শিক্ষকদের এম পি ওভুক্ত করার জন্যও শিক্ষক নেতৃবৃন্দ সরকারের নিকট জোর দাবী জানান।

চট্টলা নিউজ
সর্বশেষ