হয়রানি বা নির্যাতনের উদ্দেশে ৫৭ ধারা করা হয়নি :প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

2017-07-24

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোনো সাংবাদিক বা গণমাধ্যমকর্মীকে হয়রানি বা নির্যাতনের উদ্দেশে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার প্রবর্তন করা হয়নি। গণমাধ্যমকর্মীরা সঠিক নিয়ম-কানুনের মধ্যে থেকে যেন তাদের কাজ করতে পারেন সেজন্যই এ ধারা। সোমবার মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক শেষে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। সচিবালয়ের কেবিনেট কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ছাড়াও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক সূত্র জানায়, মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রধানমন্ত্রীকে জানানোর জন্য প্রসঙ্গটি উত্থাপন করেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ৫৭ ধারার বিরুদ্ধে সাংবাদিকরা আন্দোলন করছেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী তথ্যমন্ত্রীর কাছে জানতে চান ৫৭ ধারায় কত জন সাংবাদিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি বলেন, কেউ যদি দেশের সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য রাষ্ট্রবিরোধী কোনো লেখা লেখে অথবা কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে যৌক্তিক প্রমাণ ছাড়াই কোনো নিউজ লেখে তাহলে কি হবে, তার বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেয়া যাবে না?

বাংলাদেশ
সর্বশেষ